২৩ মাঘ, ১৪২৯ - ০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ - 06 February, 2023
amader protidin

রংপুরে বাসের টিকিট বিক্রি বন্ধ

আমাদের প্রতিদিন
1 month ago
96


নিজস্ব প্রতিবেদক:

আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে রংপুর থেকে ঢাকাগামী বাসের টিকিট বিক্রি ইতোমধ্যেই বন্ধ হয়ে গেছে। নগরীসহ জেলার বিভিন্ন বাস কাউন্টারগুলো থেকে আগামী ৮, ৯ ও ১০ ডিসেম্বরের বাসের টিকিট বিক্রি হচ্ছে না। অনেক যাত্রীর জরুরি কাজে ঢাকা যাওয়ার প্রয়োজনে হলেও তারা টিকিট পাচ্ছেন না। আবার কেউ কেউ সহিংস পরিস্থিতির আশঙ্কায় টিকিট কাটছেন না।

বুধবার (০৭ ডিসেম্বর) নগরীর কামারপাড়া ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় অগ্রিম টিকিট কাটতে আসেন নগরীর তামপাট এলাকার আশরাফুল আলম। তিনি বলেন, ব্যবসায়ীক কাজে ঢাকায় আগামী ১০ ডিসেম্বর যাবেন এজন্য বাসের অগ্রিম টিকিট কাটতে এসেছি। কিন্তু এসে দেখি ৯ ও ১০ ডিসেম্বরের টিকিট বিক্রি বন্ধ রয়েছে।’

নগরীর মাহিগঞ্জ এলাকার নুর হোসেন ও শারমিন বেগম দম্পতি বলেন, ‘চিকিৎসার জন্য ৯ ডিসেম্বর ঢাকায় যাওয়ার কথা। কিন্তু ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় টিকিট না কেটেই ফিরে যাচ্ছি।’ একই কথা বলেন, আরও অনেকেই।

তবে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছেন, বিএনপি যেহেতু একটি রাজনৈতিক দল সেহেতু তারা সভা-সমাবেশ করতেই পারে। এটাই স্বাভাবিক ব্যাপার। অন্যদল ও করতে পারে। তখনতো পরিবহন ধর্মঘট হয় না। টিকিট বিক্রি বন্ধ হয় না। কিন্তুু যখনই বিএনপি সমাবেশ করে তখনই এমন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। এতে সাধারণ জনগণের দুর্ভোগ বাড়ে। আমাদের এই পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণ হওয়া জরুরী। তা না হলে জনগণের আরোও ভোগান্তি বাড়বে।

এদিকে নাম না প্রকাশে অনিচ্ছুক রংপুর জেলা বাস মালিক সমিতি ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের দুই নেতা জানান, ‘১০ ডিসেম্বর ঢাকায় কী হবে, এ নিয়ে আমরা শঙ্কায় আছি। তাই তিন দিনের টিকিট বিক্রি বন্ধ রয়েছে। তবে কিছু কিছু বাস ৭-৮ ডিসেম্বরের টিকিট বিক্রি করছে এবং ৯ ও ১০ ডিসেম্বরের টিকিট বিক্রি পুরোপুরি বন্ধ রেখেছে।’

রংপুর জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ বলেন, ৭ ও ৮ ডিসেম্বরের কিছু কিছু বাসের টিকিট বিক্রি হলেও ঢাকায় বিএনপির মহাসমাবেশ নিয়ে অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় ৯ ও ১০ ডিসেম্বরের টিকিট বিক্রি পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে।

রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আফতাবুজ্জামান রিপন বলেন, ‘ঢাকার টিকিট বিক্রি করা বা গাড়ি বন্ধ রাখার নির্দেশনা কেউ দেয়নি। সম্ভবত বাস মালিকরা নিজেরাই টিকিট বিক্রি বন্ধ রেখেছে।’

সর্বশেষ

জনপ্রিয়