২৩ মাঘ, ১৪২৯ - ০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ - 06 February, 2023
amader protidin

বিদ্রোহী প্রাথী বাবু’র মনোনয়ন প্রত্যাহার,মিলনকে নিয়ে নানা আলোচনা

আমাদের প্রতিদিন
1 month ago
44


রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আতাউর জামান বাবু। বৃহস্পতিবার (০৮ ডিসেম্বর) দুপুরে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন তিনি। দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত মেনেই তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন বলে জানান। তার এ সিদ্ধান্তকে দলীয় নেতাকর্মীরা স্বাগত জানালেও এখন বিদ্রোহী হিসেবে ভোটের মাঠে মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি লতিফুর রহমান মিলন থাকায় দলের ভিতর নানা আলোচনা-সমালোচনা চলছে। কেউ কেউ বলছেন, মিলন কেন প্রত্যাহার করলো না, সে ভোট কত পাবে। এতে আওয়ামী লীগের কি ক্ষতি হবে। জাতীয় পার্টি কি সুবিধা নিবে এ রকম নানা জল্পনা-কল্পনা। আবার কেউ বলছে, ভোটের মাঠে বেশী প্রার্থী হলে ভালো হয়। অনেকেই বিরুপ প্রক্রিয়াও ব্যক্ত করেছেন।

          আজ প্রতীক বরাদ্দ

এদিকে মনোনয়ন প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা  আবদুল বাতেন। তিনি  বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচনে  মেয়র প্রার্থী  আতাউরজ্জামান বাবু গতকাল দুপুরে  মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এসময় তিনি বলেন,আজ শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। এর পর প্রার্থীরা প্রচারণায় নামবেন।

মনোনয়ন প্রত্যাহারের পর আতাউজ্জামান বাবু বলেন, দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন থেকে আমি সরে দাঁড়ালাম। সেই সঙ্গে এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডালিয়াকে সমর্থন দিয়ে তার সাথে কাজ করবো।

আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া সাংবাদিকদের বলেন, দলের সকল নেতাকর্মী আমরা একটা পরিবার। পরিবারে আবেগ,ক্ষোভ থাকতেই পারে।তবে সেই আবেগ দীর্ঘ স্থায়ী নয় জন্যই আজ দলীয় সিদ্ধান্তকে মেনে নিয়ে আতাউরজ্জামান বাবু মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।আমরা এখন সকলে এক হয়ে নৌকার বিজয়ে কাজ করবো।এবং বিজয় সুনিশ্চিত করে রংপুর সিটি করপোরেশন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চাই।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রসিক নির্বাচনে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, সহ-সভাপতি আবুল কাশেম সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

এদিকে নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মেয়র পদে যে ৯ জন প্রতিদ্বিদ্বতা করছেন তারা হলেন, আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা ডেইরি ফার্মাস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লতিফুর রহমান মিলন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রংপুর মহানগর সভাপতি আমিরুজ্জামান পিয়াল, জাকের পার্টির নেতা খোরশেদ আলম খোকন,  স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান বনি, জাসদের মো. সফিয়ার রহমান, বাংলাদেশ কংগ্রেসের স্বতন্ত্র মো. আবু রায়হান,  খেলাফত মজলিসের মো. তৌহিদুর রহমান মন্ডল রাজু।  এছাড়া সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬৭ এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৮৫ জনসহ মোট ২৬২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বিদ্বতা করছেন।

প্রসঙ্গত: রংপুর সিটি করপোরেশনে ভোটার সংখ্যা চার লাখ ২৬ হাজার ৪৬৯ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ১২ হাজার ৩০২ জন এবং নারী ভোটার দুই লাখ ১৪ হাজার ১৬৭ জন। ২২৯টি কেন্দ্রে আগামী ২৭ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়