৮ ফাল্গুন, ১৪৩০ - ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ - 21 February, 2024
amader protidin

মশার উৎপাতে অতিষ্ঠ রংপুর নগরবাসী

আমাদের প্রতিদিন
2 months ago
132


নিজস্ব প্রতিবেদক:

রংপুরে শীতের শুরুতে মশার উপদ্রব শুরু হয়েছে। এতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে মহানগরবাসী। মশার প্রজনন স্থলগুলো পরিস্কার না করা ও নিয়মিত মশা নিধন কার্যক্রম পরিচালনা না করার কারণে মশার এই উৎপাত বেড়েছে। এই মশা নিধনে অনেকেই কীটনাশক, কয়েল করেও রক্ষা পাচ্ছেন না। দ্রæত সময়ের মধ্যে মশা নিধনের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। তবে রংপুর সিটি কর্পোরেশন কৃর্তপক্ষ বলছে, মশা নিধন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

                            পরিস্কার হয়না প্রজনন স্থলগুলো

জানাগেছে, দেশের প্রাচীনতম রংপুর পৌরসভাকে ২০১২ সালে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা হয়। পুর্বের ১৫টি ওয়ার্ডের সাথে নতুন করে ১৮টি ওয়ার্ড সংযুক্ত করা হয়। যার লোকসংখ্যা ১০ লাখ। তবে পুরনো ১৫টি ওয়ার্ডে ঘনবসতি হওয়ায় ড্রেন, খাল এবং বসতবাড়ির আশপাশেই মশা বেশি জন্ম নিচ্ছে। তাছাড়া রংপুর মহানগরীর ওপর দিয়ে প্রবাহিত শ্যামাসুন্দরী খালের অনেক স্থান অপরিস্কার রয়েছে। অনেকে ড্রেনে ময়লা আবর্জনা ফেলার কারনে মশা জন্ম নিচ্ছে। বিভিন্ন এলাকার বসত বাড়ির আশপাশে ঝোপঝাড় রয়েছে। পরিস্কারও করা হচ্ছেনা। যার কারনে দিনের পর দিন মশার উপদ্রব বেড়ে চলছে।

ভুক্তভোগীরা জানান, শীতের মৌসুমে মশার উৎপাতে তারা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন। দিনে-রাতে সব সময়ই মশা আর মশার উৎপাত।মশা মারার জন্য কেউ ব্যবহার করছেন কীটনাশক। অনেকেই কয়েল ব্যবহার করছেন। তারপরেও কাজ হচ্ছে না। এজন্য তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য দাবি জানিয়েছেন।

                          নিয়মিত নেই মশা নিধন কার্যক্রম 

নগরীর নিউ সেনপাড়ার উম্মে  হাবিবা নামের এক গৃহবধু বলেন, দিনে-রাতে মশার যে উৎপাত বেড়েছে তাতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি। রান্না করবো, ঘুমাবো কিংবা বসে গল্প করবো কোথাও শান্তি নেই।

শালবন এলাকার রুহিত জামান বলেন, রংপুর নগরীতে মশার যে উৎপাত বেড়েছে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে তেমন কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করায় তারা হতাশ। তিনি বলেন, মশার কামড়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে যেতে পারেন। 

                               দ্রুত পদক্ষেপ চায় নগরবাসী

নগরবাসীরা জানায়, চলতি বছরের কয়েক মাস আগে ডেঙ্গুর প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে সারাদেশের ন্যায় রংপুর সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষও নড়েচড়ে বসে। রুটিন মাফিক মশা নির্ধন কার্যক্রম পরিচালিত হয়। পরে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমে গেলে মশা নিধন কার্যক্রম ধীরে চলছে। সম্প্রতি শীতের মৌসুমে মশার উৎপাত আশংকাজনক হারে বেড়ে গেছে। মশার কামড়ে তারা অতিষ্ঠ। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে নগরীতে মশা নিধন কার্যক্রম শুরু করার দাবি করেন।

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ মাহাবুবার রহমান মঞ্জু জানিয়েছেন, সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে মশা নিধন অভিযান চলমান রয়েছে। প্রয়োজনে কার্যক্রম আরও বাড়ানো হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়