১৭ ফাল্গুন, ১৪৩০ - ০১ মার্চ, ২০২৪ - 01 March, 2024
amader protidin

বীরগঞ্জে অতি-দরিদ্র পরিবার উন্নয়ন কর্মসূচীর গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

আমাদের প্রতিদিন
11 months ago
355


বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বীরগঞ্জ এপির আয়োজনে অতি দরিদ্র পরিবার উন্নয়ন কর্মসূচীর গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলার শালবন কমিউনিটি সেন্টার মিলনায়তনে বুধবার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম।

ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বীরগঞ্জ এপি ম্যানেজার রবার্ট কমল সরকারের সভাপত্বি এবং প্রোগ্রাম অফিসার দিপা রোজারিও এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার ডাঃ মোঃ ওসমান গণি, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মনোরঞ্জন অধিকারী, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার সারোয়ার মুর্শিদ আহমেদ।

অনুষ্ঠানে অতি দরিদ্র পরিবার উন্নয়ন কর্মসূচীর উপকারভোগী সদস্য, গ্রাম উন্নয়ন কমিটির সদস্য, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বীরগঞ্জ এপির কর্মকর্তা ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে উপকারভোগীদের পক্ষ থেকে শিউলী বেগম বলেন ”আমার স্বামী মারা যাবার পর দুই সন্তান নিয়ে অনেক কষ্টে দিন অতিবাহিত করতাম। ওয়ার্ল্ড ভিশনের সহযোগিতায় আমি এখন স্বাবলম্বী হয়েছি, আমার এক ছেলে এক মেয়ে পড়াশোনা করছে এবং আমার সন্তানদের নিয়ে ভাল আছি। এ সময় সকল উপকারভোগীগণ অঙ্গীকার করে বলেন যে পরিবারকে অতি দরিদ্র থেকে স্বল্প আয়ের পরিবার হিসেবে গড়ে তুলবো পাশাপাশি পরিবারের সাধিত উন্ন্য়ন অব্যাহত এবং গ্রাম ও সমাজ গঠনে ভুমিকা রাখব।

গ্রাম উন্নয়ন কমিটির পক্ষে মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, ”ওয়ার্ল্ড ভিশন আমাদের গ্রামের শিশু ও অতি-দরিদ্র পরিবারে উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছে। 

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তেব্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম, উপকারভোগীদের গ্রাজুয়েশন পর্যায়ে আনার জন্য ওয়ার্ল্ড ভিশনের কার্যক্রমের প্রসংশা করেন ও উপকারভোগীদের সাধুবাদ জানান। এর ধারা অব্যাহত রাখার জন্য পরামর্শ প্রদান করেন ও প্রত্যেকটি পরিবারে সজনা ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করেন ।

এপি ম্যানেজার রবার্ট কমল সরকার অতি-দরিদ্র পরিবারের উন্নয়নে ওয়ার্ল্ড ভিশনের ভুমিকা তুলে ধরেন এবং আল্ট্রাপোর গ্রাজুয়েশন কর্মসূচীর উদ্দেশ্য সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ প্রদান করে বলেন, লক্ষিত পরিবারের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং টেকসই আয়ের উৎস তৈরীর মাধ্যমে শিশু কল্যান নিশ্চিত করার জন্য আল্ট্রাপোর গ্রাজুয়েশন প্রজেক্ট মডেল বাস্তবায়ন করছে। আল্ট্রাপোর গ্রাজুয়েশন একটি সমন্বিত, সময় নিয়ন্ত্রিত এবং ধারাবাহিক কার্যক্রম যার উদ্দেশ্য হচ্ছে জনগণকে অতি-দারিদ্রতা থেকে টেকসই জীবিকায়নের দিকে নিয়ে যাওয়া এবং অতি-দরিদ্র পরিবারের অর্থনৈতিক ও সামাজিক অগ্রগতি যা নির্দিষ্ট ১০টি সূচক দ্বারা ২ বছরের কার্যক্রমের ভিত্তিতে পরিমাপ করা হয়।

বীরগঞ্জ এপি কর্তৃক অর্থবছর-২০২১ এ ৩৬০ জন অতি-দরিদ্র পরিবারকে দারিদ্র সীমা পেরিয়ে টেকসই জীবিকায়ন এর দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য ৩০০ জনকে বকনা বাছুর, ৪০ জনকে ছাগল ও ২০ জনকে ক্ষুদ্র ব্যবসার উপকরণ সামগ্রী প্রদান করা হয়। আল্ট্রাপোর গ্রাজুয়েশন মূল্যায়ন রিপোর্ট’২৩ অনুযায়ী ৩৫৯ টি পরিবার অতি-দরিদ্র পরিবার থেকে স্বল্প আয়ের পরিবারে উন্নীত হয়ে গ্রাজুয়েট হয়েছে।

 

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়